ভাঙ্গা সাঁকো

এই কবিতা ইতিমধ্যে 682 বার পড়া হয়েছে!

ভাঙ্গা সাঁকো

লেখাঃ অনিক শিকদার

 

তীর থেকে বুঝি সাঁকো ঐ পাড়ে লেগেছে,

শেষ ধার এসে দেখি মাঝ নদে ভেঙ্গেছে।

কভু আর পাড়ে নাহি ফিরিবার মনে চাই,

ওপাড়ে মেঘ নেমে খুঁজে ফিরে ভেসে যায়।

দুই পাড় ছেয়ে যায় বানে জলে জোয়ারে,

ডুবে ডুবে জল খাই বাঁকা জল মাঝারে।

মাঝ নদে আমি ডুবি ভানু ডুবে পাড়েতে,

সারা নিশি ভেসে ভেসে ঠেকে আছি ঘাটেতে।

এই ঘর নাহি চিনি নাহি জানি কাহারে,

মেঘ ছুঁতে এসে দেখি মেঘ মিলে ওপাড়ে।

প্রাণ কাঁদে মন ছুটে যেতে চায় স্বগৃহে,

এ পাড়ের মায়া সব মিশে গেল আঁধারে।

মেঘ মালা ভেসে যায় আমি যাই কিভাবে,

মরি আমি উচাটনে প্রিয়জন অভাবে।

চিঠি হয়ে যাও মেঘ বলে দিও প্রিয়ারে,

মোর পথ চেয়ে যেন নাহি কাঁদে ওপাড়ে।

তার ধ্যানী আমি তন্বী জাগি সব নিশীথে,

জানি আমি বসে আছি কলি-যুগ কুপথে।

 

১লা আশ্বিন ১৪২৪

নারায়ণগঞ্জ।

Print Friendly

Author Profile

অনিক শিকদার
অনিক শিকদারবিন্দুস্থ প্রাণী আমি, বিন্দুতেই বসবাস!
লেখার ইচ্ছে শুধু,
তার অধিক আর কিছুই না।
বাদবাকি আপনাদের দোয়া।

"একজন লেখক তার লেখা যতবার পড়ে, ততবারই সংশোধন করে।"
তাই ভুল-ভ্রান্তি ক্ষমা করবেন।
5.00 avg. rating (88% score) - 1 vote

Enjoyed this post? Share it!